ঋতু বর্ণন – আলাওল

প্রথমে বসন্ত ঋতু নবীন পল্লব।
দুই পক্ষ আগে পাছে মধ্যে সুমাধব।।
মলয়া সমীর হৈল কামের পদাতি।
মুকুলিত কৈল তবে বৃক্ষ বনস্পতি।।
কুসুমিত কিংশুক সঘন বন লাল।
পুস্পিত সুরঙ্গ মল্লি লবঙ্গ গুলাল।।
ভ্রমরের ঝস্কার কোকিল কলরব।
শুনিত যুবক মনে জাগে অনুভব।।
নানা পুষ্প মালা গলে বড় হরষিত।
বিচিত্র বসন অঙ্গে চন্দন চর্চিত।।

নিদাঘ সমএ অতি প্রচ-তপন।
রৌদ্র ত্রাসে রহে ছায়া চরণে সরণ।।
চন্দন চম্পক মাল্য মলয়া পবন।
সতত দম্পতি সঙ্গে ব্যাপিত মদন।।
পাবস সময় ঘন ঘন গরজিত।

নির্ভয়ে বরিষে জল চৌদিকে পূরিত।।
ঘোর শব্দে কৈলাসে মল্লার রাগ গাত্র।
দাদুরী শিখীনি রব অতি মন ভাএ।।
কীটকুল রব পুনি ঝংকারে ঝংকারে।
শুনিতে যুবক চিত্ত হরষিত ডরে।।
আইল শারদ ঋতু নির্মল আকাশে।
দোলাএ চামার কেশ কুসুম বিকাশে।।
নবীন খঞ্জনে দেখি বড়ই কৌতুক।
উপজিত যামিনী দম্পতি মনে সুখ।।
প্রবেশে হেমন্ত ঋতু শীত অতি যায়।
পুষ্প তুল্য তাম্বূল অধিক সুখ হয়।।
শীতের তরাসে রবি তুরিতে লুকাএ।
অতি দীর্ঘ সুখ নিশি পলকে পোহাএ।
পুষ্প শয্যা ভেদ ভুলি বিচিত্র বসন।
উরে উরে এক হৈল শীত নিবারণ।।
কাফুর কস্ত্তরী চুয়া যাবক সৌরভ।
দম্পতির চিত্তের চেতন অনুভব।।

donate